1. raselahamed29@gmail.com : admin :
  2. muktirbarta85@gmail.com : muktirbarta :
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০৮:১০ অপরাহ্ন
এই মুহুর্তে :
কুষ্টিয়ার মিরপুরে সন্ত্রাসী হামলায় প্রধান শিক্ষক আহত কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে ফেন্সিডিল সহ ০১ জন আসামী গ্রেফতা কুষ্টিয়ার মিরপুরে গৃহবধূকে আগুনে’ পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ গাজীপুরে কল্যানপুর দরবার শরীফে অগ্নিসংযোগ ভাংচুর লুটপাটের প্রতিবাদে মানববন্ধন পুনাক কুষ্টিয়া’র উদ্যোগে মা ও শিশু পূনর্বাসন কেন্দ্রের বৃদ্ধ মহিলাদের মাঝে উন্নতমানের খাবার ও চাউল বিতরণঃ কল্যানপুর দরবার শরীফে অগ্নিসংযোগ ভাংচুর লুটপাটের প্রতিবাদে মেহেরপুরে মানববন্ধন কুষ্টিয়ায় গলায় দড়ি দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা কুষ্টিয়া -ঝিনাইদহ মহাসড়কে চলছে মৃত্যের মিছিল,ঝড়ে গেলো ৪ বিড়ি শ্রমিকের প্রাণ সন্ত্রাসী টোকেন চৌধুরীর গ্রেফতার দাবি কল্যানপুর দরবার শরীফে অগ্নিসংযোগ ভাংচুর লুটপাটের প্রতিবাদে জেলায় জেলায় মানববন্ধন কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ মিলন মন্ডল আটক

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে রাক্ষসী মাছ খেয়ে নিল কৃষকের ৪০ বিঘা জমির ধান

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৯৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে রাক্ষসী মাছ খেয়ে নিল কৃষকের ৪০ বিঘা জমির ধানwqq

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর সদকী ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের প্রায় ৪০ বিঘা জমির ধান রাক্ষসী মাছ দিয়ে তছরুপ করার অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার আকুব্বর মেম্বারের ছেলে লিটন নামক মৎস্য ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। প্রায় ৩০ বছর যাবত এমন ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

ভুক্তভোগী আক্কাসের ছেলে রাশিদুল হোসেন, আদু শেখের ছেলে কেসমত আলী, সেকেনের ছেলে স্বপন এবং বোরিং মালিক লিয়াকতের ছেলে আব্দুল হালিম জানান প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে মৎস্য ব্যবসায়ী লিটন গ্রাসকার্প জাতীয় রাক্ষসী মাছ দিয়ে প্রায় ৩০ বছর যাবত এভাবে ক্ষতি করে আসছে। রামকৃষ্ণপুর বিলে লিটন সহ ৪/৫ জন মাছ চাষ করে এবং সেখানে তাদের বোরিং আছে কিন্তু উঁচু অঞ্চলের এই সীমানায় তাদের কোন জমি না থাকলেও শুধুমাত্র গায়ের জোড়ে এমন অনাচার করে থাকেন। আব্দুল হালিম আরো বলেন তার বোরিংয়ের আওতায় প্রায় ৪০ বিঘা জমিতে এই মৌসুমে বগুড়াশুন্য প্রজাতির ধান লাগানো হয় পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে ধান বড় হতে থাকে যেকারনে ডুবে গিয়ে ধান মারা যাবার কোন সম্ভবনা থাকেনা এবং এই ধান কার্তিক /অগ্রহায়ণ মাসে কাটা হয় প্রতি বিঘায় প্রায় ২৫/৩০ মণ ধান পাওয়া যায়। কিন্তু লিটনের কারনে প্রতিবছর তারা লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।

এ বিষয়ে মৎস্য ব্যবসায়ী লিটন বলেন আমার দ্বারা কারোর কোন ক্ষতি হচ্ছেনা ২/১ বিঘা জমির ধান মাছ খেয়েছে আমার কাছে আসলে ক্ষতিপূরন দিয়ে দিবো। ঘিরে নিয়ে মাছ চাষ করেননা কেন এমন প্রশ্নের সদুত্তর তিনি দেননি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজিবুল ইসলাম খান বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই তবে কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার ও মৎস্য অফিসারদের মাধ্যমে পরিদর্শন করিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে।,

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

© All rights reserved © 2020 dailymuktirbarta.com

Design & Developed By : Anamul Rasel

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.